ধামরাই‌ সুতিপাড়া ইউ‌পি নির্বাচ‌নে প্রচার প্রচারণা শেষ: সুষ্টু ভোটের প্রত্যাশা ভোটারদের

মো: ওয়াসিম হোসেন:
ঢাকা জেলার ধামরাই সুতিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সকল প্রার্থীরা রাস্তা,ঘাট,বাজার,চায়ের দোকান,বাড়ি বাড়ি,গিয়ে বৃদ্ধা,যুবক,তরুণ, ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট চেয়েছে। শুধু তাই নয় প্রতিটা ভোটারের হাতে হাত,গলায় জড়িয়ে ধরছে।আবার দেখা যায় প্রতিটা অলিগলি বাজারে পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে।
ঢাকার ধামরাইয়ে ৯ম ধাপে সূতিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ জুন। এ ইউনিয়নে ভোটার রয়েছে ২৪ হাজার ৬শত ৯৩জন।
ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছে ৬ জন। নৌকার প্রার্থী রেজাউল করিম রাজা,স্বতন্ত্র প্রার্থী চশমা মার্কায় রমিজুর রহমান চৌধুরী রোমা,ঘোড়া মার্কায় রবিউল করিম রুবেল,অটোরিকশা মার্কায় এসএম তানভীর আহমেদ তুহিন,আনারস মার্কায় আলিমুর রহমান ও ইসলামী আন্দোলন হাত পাখা মার্কায় মোঃ নুরুজ্জামান।
এ ছাড়াও সদস্য পদে প্রার্থী রয়েছে ৫৮ জন। এ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সুষ্টু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দেয়ার দাবি জানিয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীরাসহ সাধারণ ভোটাররা।
গত বছরের ১১ নভেম্বর ধামরাই উপজেলায় ১৬টি ইউনিয়নের মধ্যে ১৫টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন শেষ হয়েছে।
সে সময় স্বতন্ত্র প্রার্থীদের প্রচারণায় কয়েকটি ইউনিয়নে দফায় দফায় হামলার ঘটনা ঘটলেও নিরপেক্ষ ও উৎসবমুখর পরিবেশে ইচ্ছেমতো ভোট দিয়েছেন ভোটাররা। সুতিপাড়া ইউনিয়নে এখন পর্যন্ত কোন সংঘর্ষের ঘটনার খবর পাওয়া না গেলেও ভোটাররা আশংকায় আছেন ভোট গ্রহণের দিন কি হবে?
সুতিপাড়া ইউনিয়নের একাধিক ভোটার বলেন, ভোটের দিন কি হবে তা আসলে আমরা কেউ জানি না। আমরা আমাদের ভোটাধিকার সুষ্টুভাবে প্রয়োগ করতে চাই। ভোট দেয়ার সময় যেন কেউ ভয়ভীতি ও চাপ সৃষ্টি না করে। আমাদের ভোট আমরা যার যার পছন্দের প্রার্থীকে যেন নিজের ইচ্ছেমত আনন্দের সাথে ভোট দিতে পারি।
বর্তমান চেয়ারম্যান ও নৌকার প্রার্থী রেজাউল করিম রাজা বলেন, ৫ বছর পূর্বে আমাকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমার হাতে নৌকা তুলে দিয়ে ছিলো।সেই সময় সুতিপাড়া ইউনিয়নের জনগণ আমাকে বিপুল ভোটে ভোট দিয়ে জয়লাভ করিয়ে চেয়ারম্যান বানিয়ে ছিলেন। আমি বিগত ৫ বছরে সুতিপাড়া বাসির কোন ক্ষতি করিনি।বন্যার ও করোনা ভাইরাসের সময় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়ে ছিলাম।আমি পাঁচ বছরে কোন বাড়ি গাড়ি ব্যাংক ব্যালেন্স চাঁদাবাজি,টেন্ডারবাজি, জমি দখল, ঘোষ, এধরনের কোন কাজ করিনি তাই আমি মনে করি সুতিপাড়ার জনগণ আমাকে বিপুল ভোটে ভোট দিয়ে জয়লাভ করাবেন।
স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চশমা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ রমিজুর রহমান চৌধুরী রোমা। তিনি বলেন, আমি অতীতেও আমার ইউনিয়নবাসীর জন্য কাজ করেছি, ভবিষ্যতেও করবো। একজন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কাছে ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের যে সামান্য চাহিদা তা পূরণ করা তেমন আহামরি কিছু না। নিজের ইচ্ছাশক্তি থাকলেই তা পূরণ করা সম্ভব
তিনি আরো বলেন, আমাকে জনগণ ভোট দিয়ে একবার চেয়ারম্যান বানিয়েছিলেন আমার সম্পর্কে তাদের ধারণা আছে। আমি তাদের জন্য কি করেছি। আমি শতভাগ আশাবাদী যে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ভোটারগন আমাকে বিপুল ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন। সৃষ্টু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের প্রত্যাশায় রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী রমিজুর রহমান চৌধুরী রোমা।
ধামরাই রিটার্নিং কর্মকর্তা আয়শা আক্তার বলেন,আসন্ন ইউপি নির্বাচন অবশ্যই উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে।ভোটারদের মাঝে উৎসবের কোন কমতি নেই।কারণ প্রতিটি ভোটার শান্তি পুর্ণভাবে ভোট গ্রহনের সকল প্রস্তুতি আমরা গ্রহন করেছি।তাই সবায় ভোটকেন্দ্রে এসে শান্তিপুর্ণভাবে ভোট দিবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*