ধামরাইয়ে নারী শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

মো: ওয়াসিম হোসেন:
ঢাকার ধামরাইয়ে জুলেখা আক্তার (১৯) নামে এক নারী শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশের ধারণা তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী মিরাজ হোসেন শেখ পলাতক রয়েছে।
বুধবার (২৬ অক্টোবর) দুপুর ১ টার দিকে উপজেলার গাংগুটিয়া ইউনিয়নের কাওয়ালীপাড়া গ্রামের শামসুল হকের বাড়ি থেকে এই নারী শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
নিহত জুলেখা আক্তার ধামরাই উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের উত্তর বাস্তা আদর্শ গ্রামের সোনা মিয়ার মেয়ে। জানা গেছে সে ধামরাইয়ে ঝুমা নামের একটি কারখানায় কাজ করতো। স্বামী মো. মিরাজ হোসেন শেখ (২৩) খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার ডুমুরিয়া গ্রামের মো. হান্নান শেখের ছেলে। গাংগুটিয়া ইউনিয়নের কাওয়ালিপাড়া গ্রামের শামসুল হকের বাড়িতে ভাড়া থেকে একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতেন।
জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে জুলেখার স্বামী ঘরে শিকল দিয়ে বের হয়ে যায়। দিন গড়িয়ে রাত হলেও তার স্বামী আর বাড়ি ফিরে আসেনি। কিন্তু ওদের এক পরিচিত সেলিম নামের এক ব্যক্তি গতকাল সন্ধ্যার দিকে জুলেখার খোঁজ করতে আসে। তখন ঘরের দরজা বাহির থেকে আটকানো দেখে সে চলে যায়। পরে আজ সকালে আবার খোঁজ করতে আসলে পাশের রুমের এক ভাড়াটিয়া দরজা খুলে দেখে জুলেখা কাঁথা গায়ে দিয়ে শুয়ে আছে। তখন শত ডাকাডাকিতে সারা না দিলে পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও থানা পুলিশে খবর দেয়া হয়।
এবিষয়ে ধামরাই থানা উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুর জব্বার বলেন, খবর পেয়ে নিহতর মরদেহটি উদ্ধার করেছি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর হবে। এবিষয়ে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*