মানিকগঞ্জে দুই চাচাতো বোনকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ৭

প্রতি‌দিন বাংলা‌দেশ, মা‌নিকগঞ্জ:
মানিকগঞ্জের ঘিওরে দুই চাচাতো বোনকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার পর অভিযুক্ত ৭ যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুর রহমান বিষয়‌টি নিশ্চিত করেছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলো, মো. হৃদয় খান (২২), মো. সোহেল রানা (২৫) মো. শাহ আলম (২৫), রনি মিয়া (২০), হাসান আলী, ফয়সাল বেপারী (২০), তামিম (২৬), ছাকিদ হোসেন (৩০)। গ্রেফতারকৃত সবাই ঘিওর উপজেলার পয়লা ইউনয়নের বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা।
গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।
ভুক্তভোগী ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, মা‌নিকগ‌ঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার খলসী গ্রামের ৩৫ ও ২৬ বছর বয়সী দুই চাচাত বোন একটি অটোরিকশা যোগে সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ঘিওর বাজারের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথি মধ্যে বরংগাইল দৌলতপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের তেরশ্রী মোড় নামক স্থানে পৌঁছালে অটো চালক আর যাবেন না বলে সড়‌কে তা‌দের নামিয়ে দেয়।
পরে তারা গাড়ির জন্য অপেক্ষা করতে থাকে। এক পর্যায়ে পায়ে হেঁটে কিছুদূর যাওয়ার পর রাস্তা থেকে কয়েকজন যুবক ভুক্তভোগী এক নারীর মোবাইল নম্বর চায়। নম্বর না দেওয়ায় জোরপূর্বক তাদের ফোন, স্বর্ণের চেইন ও টাকা হাতিয়ে নেয় যুবকরা। এরপর ভুক্তভোগী দুই নারীকে জোর পূর্বক রাস্তার পাশে একটি ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে ৭ জন মিলে ধর্ষণ করে। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় ভুক্তভোগীরা থানায় এসে ঘটনা জানায়।
ঘিওর থানার ওসি মো. আমিনুর রহমান বলেন, ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু হয়েছে। ঘিওরসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়। জেলা সদর হাসপাতালে ভুক্তভোগীদের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*