মশা মার‌তে ত‌বে কি লাগ‌বে কামান!

প্র‌তি‌দিন বাংলা‌দেশ, ২০ মার্চ:
বাংলা ভাষায় এক‌টি জনপ্রিয় প্রবাদ হ‌লো, মশা মারতে কামান দাগান। ছোট কাজে বড় আয়োজন বুঝা‌তে ব্যবহার হয়ে থাকে প্রবাদ‌টি।
ত‌বে স‌ত্যি স‌ত্যি মশা মারতে কামান নিয়ে কেউ বের হয়েছে কি না তা বলা মুশকিল। হয়তো বা কোনো ইতিহাসে থাকতে পারে। তবে বর্তমা‌নে মশার যে উপদ্রব, অার মশা মারতে এতোসব ব্যর্থ অা‌য়োজন এতে প্রমাণ হ‌য়ে‌ছে মশা মারা কিন্তু এতো সহজ নয়। যার কার‌নে মশা মার‌তে ত‌বে কি লাগ‌বে কামান!
সারা দে‌শে ও ঢাকা শহরে মশার উৎপাত সম্প্রতি বেড়ে গেছে। বিগত বছরগুলোতে মশা বাহিত চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায়, মশা ঠেকাতে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে সিটি করপোরেশন কিন্তু কা‌জের কাজ কিছুই হ‌চ্ছে না। অাবার স্থাস্থ্য মন্ত্রী‌ মোহাম্মদ না‌সিম ব‌লে‌ছেন, পৃথিবী যতদিন থাকবে ততদিন মশা থাকবে। মশ‌ার উপদ্র‌বে জমছে মশা মারার অস্ত্রপাতির বাজার, মশা‌রি, ব্যাট, ক‌য়েলসহ বি‌ভিন্ন জি‌নিষ বিক্রি  হ‌চ্ছে দেদার। এমন‌ কি দাম বা‌ড়ি‌য়ে দি‌য়ে‌ছে বি‌ক্রেতারা।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি জরিপে উঠে এসেছে, মিন্টো রোড ও বেইলি রোডের মতো এলাকায় মশার উপস্থিতি অন্য এলাকার চেয়ে বেশি
মন্ত্রীসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের আবাসস্থল এই এলাকাটি মন্ত্রীপাড়া নামেই পরিচিত।
মশা মারার জন্য রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন ড্রেনে গাপ্পি মাছ অবমুক্ত করছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। এই প্রজাতির মাছ ড্রেন থেকে কিউলেক্স মশা ও এর জীবাণু ধ্বংস করবে বলে জানিয়েছে ডিএসসিসি।
অাবার, বাসাবাড়িতে এডিস মশার প্রজননক্ষেত্র পাওয়া গেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ভবনের মালিকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে দক্ষিণ সিটি মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।
মশা নিধন ও বিস্তার রোধে ডিএসসিসির এ উদ্যোগ কতটা কাজে আসবে বা এতে নাগরিক ভোগান্তি বাড়বে কিনা সে বিষয়ে জনমনে দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন।
অাবার চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে ডেইজি স্টাইলে কুমিল্লা মহানগরীর মেইন রোডসহ আবাসিক এলাকার নালা ও ড্রেনসমুহে মশক নিধন স্প্রে কার্যক্রম শুরু ক‌রে‌ছে মেয়র সাক্কু।
মশার উপদ্রব নিয়ন্ত্রণ বলতে যা বোঝায় তা এখনো দুরূহ বিষয়। নানা কার্যক্র‌মের প‌রেও মশার উপদ্রব না কমায় মশা মারতে কামান দাগান ছাড়া অার কোন উপায় অা‌ছে কিনা জানা নেই।

‌মোহাম্মদ সো‌হেল রানা খান
সম্পাদক ও প্রকাশক
প্র‌তি‌দিন বাংলা‌দেশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*