Templates by BIGtheme NET

ফেসবুক কি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে?

শনির দশায় পড়েছে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। অনেকের মনে এখন প্রশ্ন জেগেছে ফেসবুক কি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে? ফেসবুকের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তারা তাদের ব্যবহারকারীদের তথ্য ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকার হাতে তুলে দিয়েছে।

এ দিকে ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা দাবি করছে ফেসবুক প্ল্যাটফর্মে ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত নয়। এ জন্য ফেসবুক ব্যবহার বন্ধ করে দিতে ফেসবুক ডিলিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হোয়াটস অ্যাপের সহ প্রতিষ্ঠাতা ব্রায়ান অ্যাক্টন। ফেসবুক তথ্য ফাঁস করে এমন অভিযোগে তুলে ফেসবুক ডিলিট করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷ অ্যাক্টন সম্প্রতি টুইটারে লিখেছেন, সময় এসে গেছে৷ ডিলিট ফেসবুক৷
তবে ফেসবুকের তরফ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়৷ জানানো হয় সোশ্যাল সাইট ফেসবুক সম্পূর্ণ সুরক্ষিত৷ কোনও তথ্য কোনওভাবে এখান থেকে ফাঁস হয় না৷ কিন্তু তা সত্ত্বেও গত ৫ দিনে কোম্পানির শেয়ার ব্যাপক হারে পড়ে যায়৷
ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা ২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচন ক্যাম্পেইনের সময় কাজ করেছিল৷
ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা মঙ্গলবার কোম্পানির চিফ এক্সিকিউটিভ অ্যালেকজান্ডার নিক্সকে সাসপেন্ড করে৷ ৫০ মিলিয়নের বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য জালিয়াতির অভিযোগে তাকে সাসপেন্ড করা হয়৷
অপর দি‌কে, পাঁচ কোটি ফেইসবুক গ্রাহকের তথ্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচারণার কৌশল নির্ধারণের কাজে লাগানোর ঘটনায় ভুল স্বীকার করেছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ।
বিষয়টি নিয়ে বিশ্বজুড়ে আলোচনার মধ্যে বুধবার এক ফেইসবুক পোস্টে তিনি বলেন, আমরাও ভুল করেছি। এ বিষয়ে আমাদেরও করার কিছু ছিল।
২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচারণায় পরামর্শক হিসেবে কাজ করে লন্ডনভিত্তিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা। ট্রাম্পের প্রচারণার রসদ যোগাতে তারা পাঁচ কোটি ফেইসবুক গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য কাজে লাগায় বলে বেরিয়ে এসেছে।
সম্প্রতি ব্রিটিশ টেলিভিশন চ্যানেল ফোরের এক প্রতিবেদনে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার বিরুদ্ধে এ বিষয়সহ রাজনৈতিক নেতাদের বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে অপপ্রচারের কৌশল অবলম্বনের অভিযোগ তোলা হয়। এরপর বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হয় যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন সরকারি সংস্থা। ইতোমধ্যে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার কার্যালয়ে তল্লাশি পরোয়ানা জারির আবেদনও হয়েছে আদালতে।
ফেইসবুক গ্রাহকদের তথ্য রাজনৈতিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের হাতে কীভাবে গেল সে বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে জাকারবার্গকে তলব করেছে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের তদন্ত কমিটি।
হাউজ অব কমন্সের তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যান ডেমিয়ান কলিন্স সোমবার জাকারবার্গকে লেখা এক চিঠিতে বলেছেন, ভয়াবহ বিধি লংঘনের বিষয়টি নিয়ে যথাযথ কর্তৃত্বসম্পন্ন একজন ঊর্ধ্বতন ফেইসবুক নির্বাহীর বক্তব্য শোনার সময় হয়েছে।
আগামী ২৬ মার্চের মধ্যে ফেইসবুক প্রধানকে এ বিষয়ে জবাব দিতে বলা হয়েছে বলে বিবিসির খবর।

‌মোহাম্মদ সো‌হেল রান‌া খান
সম্পাদক ও প্রকাশক
প্র‌তি‌দিন বাংলা‌দেশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*