বিশ্ব মিডিয়ার প্রধান শিরোনামে চকবাজারের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

প্র‌তি‌দিন বাংলা‌দেশ, ঢাকা:
রাজধানীর পুরান ঢাকার চকবাজারের নন্দ কুমার দত্ত সড়কের কয়েকটি ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৭০জনের প্রাণ ঝরেছে। সংশ্লিষ্টদের আশঙ্কা, এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।
বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত সাড়ে ১০টার পরে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। তবে এ ঘটনার প্রায় ১২ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও তা পুরোপুরি নেভানো সম্ভব হয়নি।
ফায়ার সার্ভিসের ৩৭টি ইউনিট আগুন নেভাতে কাজ করছে। সকালে হেলিকপ্টারে করে উপর থেকে পানি ছিটায় বিমান বাহিনীর দু’টি হেলিকপ্টার।
বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রধান শিরোনামে উঠে এসেছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার চকবাজারের অগ্নিকাণ্ড। বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান, এএফপি, আল জাজিরা, রয়টার্সসহ বিভিন্ন শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম গুরুত্ব সহকারে পুরান ঢাকার এই অগ্নিকাণ্ডের খবর প্রচার করছে।
আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের বিভিন্ন প্রতিবেদনে চকবাজারের এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার তাৎক্ষণিক খবর জানানো হচ্ছে। এসব গণমাধ্যমের প্রধান শিরোনামেই রয়েছে চকবাজারের আগুন।
ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা বিবিসির প্রধান শিরোনাম করা হয়েছে, বাংলাদেশে অগ্নিকাণ্ড : ঐতিহাসিক ঢাকায় আগুনে বহু প্রাণহানি।
এএফপির শিরোনামে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের রাজধানীতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৬৯। অপরদিকে গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে, ঢাকায় অগ্নিকাণ্ড : কেমিক্যালের দোকান হিসেবে ব্যবহৃত অ্যাপার্টমেন্টে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৭০।
কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রধান শিরোনাম হয়েছে, বাংলাদেশের রাজধানীর পুরান ঢাকায় অগ্নিকাণ্ডে বহু প্রাণহানি।
ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, কেমিক্যালের গুদাম হিসেবে ব্যবহৃত অ্যাপার্টমেন্টে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৬৯।
এ ঘটনায় শোক জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। টাইমস নাউ শিরোনাম করেছে, বাংলাদেশ ফায়ার: অ্যাড লিস্ট ৬৯ ডেড ইন ঢাকাস চকবাজার।
ডেথ টল বাংলাদেশ বিল্ডিং ফায়ার রাইজেস টু ৫৯ শিরোনামে রয়টার্স তাদের প্রতিবেদনে বলেছে, বাংলাদেশের রাজধানীর ঢাকার শতবর্ষের পুরানো এলাকায় ভবনে আগুন লেগে অন্তত ৫৬জন নিহত হয়। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*